একটি ওয়েবসাইট থেকে আর্নিং করার কয়েকটি কার্যকরি পদ্ধতি , যা আপনার অবশ্যয় জানা প্রয়োজন!!!

[ad_1]

আসসালামু আলাইকুম,
আজকালের সাধারণ মানুষের ও একটি ওয়েবসাইট থাকে। একটি ওয়েবসাইট থেকে টাকা ইনকাম করার অনেক রকম পদ্ধতি আছে।  এখন ওয়েবসাইট থেকে অনেকেই প্রতি মাসে লাখ লাখ টাকা ইনকাম করছে শুধুমাত্র তার একটি ওয়েবসাইট দিয়ে।   এটা যে খুব কঠিন তা নয় তবে এটা যে একেবারে সহজ সেটাও নয়।  যেকোনো বিষয়ে সফলতা পাওয়ার জন্য প্রথমে প্রয়োজন ধৈর্য এবং অধ্যবসায়। একটি ওয়েবসাইটে ভিজিটর না থাকলে সেখান থেকে কোন রকম ইনকাম করা সম্ভব নয়, তবে যদি ভিজিটর থাকে তাহলে সেখান থেকে লাখ লাখ টাকা ইনকাম করা সম্ভব। তবে প্রাথমিকভাবে একটু ওয়েবসাইট খুললে সেখানে কোন ভিজিটর ই থাকে না। প্রাথমিকভাবে ওয়েবসাইটে ভিজিটর আনা অনেক কষ্টকর, তবে যদি আপনি ওয়েবসাইটে কিছু সময় দেন, ধৈর্য ধরেন,  তাহলে আপনি কয়েক মাসের ভিতরে ওয়েবসাইটে ভিজিটর আনতে পারবেন।  আপনি কয়েকটা উপায় অবলম্বন করতে পারেন এবং সব থেকে বেশি যে উপায়টি কার্যকর সেটি হল এসইও বা সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন। এছাড়া অনেক উপায় আপনি ডিজিটাল বাড়াতে পারেন তো আমাদের আজকের টপিক ওয়েবসাইটের ভিজিটর বানানো নিয়ে নয়, আজকে আমরা কথা বলব কিভাবে একটি ওয়েবসাইট থেকে আপনি আর্নিং করতে পারবেন এর কয়েকটি পদ্ধতি নিয়ে। তো চলুন শুরু করা যাক।

যদি আপনার ওয়েবসাইটে পর্যাপ্ত পরিমাণে ভিজিটর থাকে  তাহলে আর সময় নষ্ট না করে এখন যে কোন একটা অ্যাড নেটওয়ার্ক এ আপনার ওয়েবসাইটটির মনিটাইজেশন করিয়ে নিন। যাদের অ্যাড নেটওয়ার্ক সম্পর্কে ধারণা কম বা ধারণা নেই তাদের ক্ষেত্রে একটু বলি। যখনই কোন নতুন প্রোডাক্ট লঞ্চ হয় অথবা কোন ওয়েবসাইট বা অ্যাপ তাদের ওয়েবসাইট বা অ্যাপ কে প্রোমোট করাতে চায়, তখন তারা তাদের ওয়েবসাইট বা অ্যাপ বা প্রোডাক্ট সম্পর্কে একটি এড নেটওয়ার্কে জানায়। তখন সেই অ্যাড নেটওয়ার্ক ওই প্রোডাক্ট বা অ্যাপ বা ওয়েবসাইট এর এড গুলোকে তাদের পাবলিশারদের ওয়েবসাইট বা অ্যাপে অ্যাডভার্টাইজ করে এবং তার বিনিময়ে পাবলিশরদের পেমেন্ট দেয়।  আমরা এভাবে পাবলিশার হয়ে অ্যাড নেটওয়ার্ক থেকে আর্নিং করতে পারি।

বর্তমানে সব থেকে জনপ্রিয় এড নেটওয়ার্ক হলো গুগল এডসেন্স, তবে গুগল এডসেন্সের রিকুয়ারমেন্ট একটু বেশি। তবে গুগল এডসেন্স ছাড়াও আরো অনেক ধরনের অ্যাড নেটওয়ার্ক আছে আপনি সেগুলো থেকেও আর্নিং করতে পারেন। adsterra , propeller ads ইত্যাদি অনেক এড নেটওয়ার্ক  রয়েছে যেখান থেকে আপনি আপনার ওয়েবসাইটটি মনিটাইজ করে নিয়ে আর্নিং করতে পারেন।

 

এই পদ্ধতিটাও অনেকটা এড নেটওয়ার্ক থেকে আর্নিং করার মত। তবে পার্থক্য হচ্ছে অ্যাড নেটওয়ার্ক এর ক্ষেত্রে এডভার্টাইজার তাদের এড গুলি প্রথমে অ্যাড নেটওয়ার্ক কে দেয় এবং সেখান থেকে আপনার ওয়েবসাইটে এড আসে। তবে এক্ষেত্রে পদ্ধতিটা একটু ভিন্ন এক্ষেত্রে অ্যাডভার্টাইজাররা আপনার ওয়েবসাইট এ তাদের অ্যাড দেখানোর জন্য সরাসরি আপনাকে পেমেন্ট করে।

এক্ষেত্রে আপনাকে শুধু যেটা করতে হবে সেটা হলো, অ্যাডভার্টাইজারদের অ্যাড অথবা তাদের ওয়েবসাইটের লিংক বা তাদের সার্ভিস সম্পর্কে আপনার ওয়েবসাইটে কিছু তথ্য দিতে হবে যা আপনার ওয়েবসাইটের ভিজিটররা দেখবে এবং এটার জন্যই আপনি পেমেন্ট পাবেন।

অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং ওয়েবসাইট থেকে আরনিং করার অন্যতম একটি সেরা উপায় এই পদ্ধতিতে আপনার ওয়েবসাইটে আপনি অন্য কোন কোম্পানির প্রোডাক্ট সেল করবেন অথবা তার অ্যাড আপনার ওয়েবসাইটে দিবেন এই অ্যাড বা সেল থেকে যে পরিমাণ সেল হবে তাদের কোম্পানির তার থেকে একটি নির্দিষ্ট অ্যামাউন্ট আপনি পেমেন্ট হিসেবে পাবেন অনেক ফেমাস ওয়েবসাইট আছে যারা বিপুল পরিমাণ টাকা অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং থেকে আর্নিং করছে। উদাহরণ-
nerdwallet.com
Thisiswhyimbroke com
এক্ষেত্রে আপনার ওয়েবসাইটে বিপুল পরিমাণ ট্রাফিক প্রয়োজন।

ই-কমার্স স্টোর ওয়েবসাইট থেকে ইনকামের একটি অন্যতম সেরা পদ্ধতি।  বর্তমানে আমাদের বাংলাদেশের অনেক ওয়েবসাইট ছাড়াও পৃথিবীর হাজার ওয়েবসাইট ই-কমার্স স্টোর ওয়েবসাইট বানিয়ে বিপুল পরিমাণ টাকা আর্নিং করছে। তবে এক্ষেত্রে একটু সমস্যা হল এক্ষেত্রে আপনার ইনভেস্টমেন্ট প্রয়োজন। আর অন্যান্য উপায় গুলিতে শুধু ওয়েবসাইট থাকলে আর্নিং করা যেত কিন্তু এখানে ইনভেসমেন্ট বাধ্যতামূলক। আপনি হয়তোবা daraz.com.bd, amazon.com ইত্যাদি ওয়েবসাইট থেকে শপিং করেছেন অথবা নামতো শুনেছেন। এগুলাই হল ই-কমার্স ওয়েবসাইট। এক্ষেত্রে আপনাকে একটি ই-কমার্স ওয়েবসাইট খুলতে হবে এবং সেখান থেকে আপনি নিজের প্রোডাক্ট সেল করবেন এবং বিনিময়ে আরনিং করবেন অথবা আপনি অন্য কোন কোম্পানির প্রোডাক্ট সেল করে সেখান থেকে একটি নির্দিষ্ট কমিশন পেমেন্ট হিসেবে পাবেন।

বর্তমানে বাংলাদেশসহ পৃথিবীর অন্যান্য দেশের আইটি ট্রেনিং সেন্টার তাদের ভিডিও করে গুলি একটি ওয়েবসাইটে সেল করছে। একটি ওয়েবসাইট থেকে আর্নিং এর অন্যতম একটি সেরা উপায় এটি। আমাদের বাংলাদেশের অনেক আইটি ইনস্টিটিউট অথবা ইন্ডিভিজুয়ালি কোন ব্যক্তি বিভিন্ন কোর্স নিজে তৈরি করে অথবা অন্য কোন সোর্স থেকে সংগ্রহ করে একটি ওয়েবসাইটে বিক্রি করছে।  এক্ষেত্রে যে আরনিং হয় তার পুরোটাই প্রফিট হিসেবে থেকে যায়। আপনি যদি নিজে কোর্স তৈরি করতে না পারে তাহলে বিভিন্ন সোর্স থেকে কোর্স নিয়ে সেটা বিক্রি করতে পারেন এবং প্রফিট এর একটি অংশ সোর্সকে দিতে পারেন এক্ষেত্রে বিপুল পরিমাণ আর্নিং হয় উদাহরণস্বরূপ –
Lynda.com
Pluralsite.com

 

ভালো লাগলে আমার ওয়েবসাইটটি ভিজিট করবেন – developsbd.com

What’s Next for Amazon’s Jeff Bezos After He Steps

Elon Musk ‘Slow-Walking’ Trial Over $44 Billion Deal, Twitter Claims

 



[ad_2]

Source link

Leave a Comment

Share via
Copy link
Powered by Social Snap