কিভাবে Microsoft এর ব্যবসায়িক পার্টনার হবেন।

[ad_1]

যদি কেউ Microsoft এর ব্যবসায়িক পার্টনার হতে চায় তাহলে তা কি হওয়া সম্ভব। হুম অবশ্যই হওয়া সম্ভব তবে এর জন্য কিছু নিয়মনীতি রয়েছে। যেকোন ছোট বড় আইটি ভিত্তিক সমাধান প্রদানকারী প্রতিষ্ঠানের মালিক চাইলে Microsoft এর পার্টনার হতে পারবে। এখন আপনি বলতে পারেন কী বা কে এবং কিভাবে একজন মাইক্রোসফট পার্টনার হওয়া যায়? তাহলে আপনার জন্য উত্তর, মাইক্রোসফট পার্টনার হলো মাইক্রোসফট এর পণ্য এবং সার্ভিস প্রদানকারী একটি স্বাধীন কোম্পানি। যারা মূলত মাইক্রোসফট এর কাস্টমারদের ২৪ ঘণ্টা ভালোমানের হেল্প এবং সাপোর্ট করে যাবে। আর এই পদ্ধতিটাই হলো মূলত মাইক্রোসফট পার্টনার এর।

Microsoft এর পার্টনার হওয়ার যোগ্যতাঃ

Microsoft এর পার্টনার হিসেবে যোগ্যতা অর্জনের জন্য কোম্পানিগুলির আইটি সমাধান এবং পরিষেবাগুলি অন্যকোন তৃতীয় পক্ষের কাছে ৭৫ শতাংশের বেশী বিক্রি করার রেকর্ড থাকতে হবে। এর বাইরেও ব্যবসার মেয়াদ কমপক্ষে ৫ বছর হতে হবে। এইরকম বেশকিছু পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হওয়া এবং নির্দিষ্ট ক্ষেত্রে তাদের দক্ষতা প্রমাণ করতে হবে। আর তখনই Microsoft এর পার্টনার হওয়ার সুযোগ পাওয়া যাবে। সুতরাং, তাহলেই তো বুঝতে পারতেছেন যে, মাইক্রোসফট এর পার্টনার হওয়া এতো সহজ কাজ নয়।

যেসকল প্রতিষ্ঠান Microsoft এর পার্টনার হতে পারবেঃ
মাইক্রোসফট এর পার্টনার হতে হলে আপনার ব্যবসা বা প্রতিষ্ঠান এর যে ধরন হতে হবে তা আমরা নিচের তালিকা থেকে জেনে নেই।

IT consulting services provider বা আইটি পরামর্শ সেবা প্রদানকারী
Independent hardware vendor (IHV) বা স্বাধীন হার্ডওয়্যার বিক্রেতা
Independent software vendor (ISV) বা স্বাধীন সফ্টওয়্যার বিক্রেতা
Large account reseller (LAR) বা বড় অ্যাকাউন্ট রিসেলার
Original equipment manufacturer (OEM) বা মূল সরঞ্জাম প্রস্তুতকারক
Software hoster বা সফটওয়্যার হোস্ট

Software support provider বা সফটওয়্যার পরিসেবক
System builder বা সিস্টেম প্রস্তুতকারক
Systems integrator বা সিস্টেম ইন্টিগ্রেটর
Software training provider বা সফটওয়্যার প্রশিক্ষণ পরিষেবা
Value-added IT provider (VAP) বা মূল্য সংযোজন আইটি প্রদানকারী
Value-added reseller (VAR) বা ভ্যালু অ্যাডেড রিসেলার
Web designer বা ওয়েব ডিজাইনার
Web marketing agency বা ওয়েব মার্কেটিং এজেন্সি

উপরের ধরনগুলির মধ্য থেকে যদি কোন একটি ধরনের ব্যবসা প্রতিষ্ঠান আপনার হয়ে থাকে তাহলে আপনি মাইক্রোসফট এর পার্টনার হতে পারেন। কোন প্রতিষ্ঠান Microsoft এর পার্টনার হয়ে গেলে Microsoft থেকে সমস্ত প্রয়োজনীয় প্রশিক্ষণ এবং অনলাইন প্রযুক্তিগত সহায়তা পেয়ে থাকে। মাইক্রোসফট পার্টনার নেটওয়ার্ক হল এমন একটি নেটওয়ার্ক যা Microsoft অংশীদার হিসাবে যোগ্য কোম্পানিগুলিকে Microsoft প্রযুক্তির উপর ভিত্তি করে তাদের গ্রাহকদের জন্য তৈরি, বিক্রয়, পরিষেবা এবং সমর্থন সমাধান করতে সহায়তা করে। নেটওয়ার্কের সদস্য যে কোনো কোম্পানি কর্মীদের দক্ষতা জোরদার করার ন্যায্য সুযোগ পায়। একটি সংস্থাকে শক্তিশালী করার পাশাপাশি এই ধরনের একটি ফার্ম মাইক্রোসফট অনলাইন মার্কেটপ্লেসগুলির তালিকার মাধ্যমে হাজার হাজার সম্ভাব্য গ্রাহকদের কাছে নিজেকে পরিচিত করার বিশাল সুযোগ পায়।

Microsoft পার্টনার এর সদস্যপদ পাওয়ার জন্য আপনাকে ৩টি পদক্ষেপ বা প্রক্রিয়া সম্পন্ন করতে হবে। এই প্রক্রিয়াগুলি হলো,

প্রথমত আপনার একটি উইন্ডোজ লাইভ আইডি লাগবে। কারণ Microsoft পার্টনার নেটওয়ার্ক ব্যবহারকারীরা প্রাথমিকভাবে Windows Live ID ব্যবহার করে থাকে।
আপনি এবং আপনার কোম্পানি সম্পর্কে মাইক্রোসফট কে জানাতে বা বলতে হবে।
Microsoft শর্তাবলীগুলিতে সম্মত হতে হবে।

Microsoft এর Gold পার্টনারঃ

মাইক্রোসফট এর সার্টিফাইড পার্টনার হওয়া মানেই প্রচুর সুবিধা ভোগ করতে পারা। তারপরও আপনি যদি মনে করেন বা অসন্তুষ্ট বোধ করেন, তবে আপনার ব্যবসাকে পরবর্তী স্তরে নিয়ে যাওয়ার জন্য আপনি Microsoft এর Gold সার্টিফাইড পার্টনার এর সদস্যতা পাওয়ার জন্য চেষ্টা করতে পারেন। তবে আপনি চাইলে এই Gold এর সদস্য পদ নিতে পারবেন না এই পদ নিতে হলে আপনাকে Microsoft প্রযুক্তিগুলির উপর সর্বোচ্চ স্তরের দক্ষতা এবং ঘনিষ্ঠ কাজের সম্পর্ক থাকতে হবে।

‘Microsoft Gold Partner’ সংস্থার শিরোনাম অর্জনের জন্য আপনাকে তাদের প্রযুক্তি দক্ষতার স্তর প্রমাণ দিতে হবে। এর জন্য আপনাকে একটি কঠোর পরীক্ষা সম্পন্ন করতে হবে। তদ্ব্যতীত তাদের প্রতি বছরের প্রোগ্রামে আপনার সকল তথ্য পুনরায় নথিভুক্ত করতে হবে। আর নিজের অবস্থান ধরে রাখার জন্য বাৎসরিক ফি প্রদান করা এবং যোগ্যতা ধরে রাখার জন্য জন্য সারা বছর জুড়ে যথেষ্ট পার্টনার পয়েন্ট অর্জন করা।

আপনি যদি মাইক্রোসফট এর এই গোল্ড মেম্বারশিপ গ্রহণ করতে পারেন তাহলে তাদের অসংখ্য সুবিধা ভোগ করতে পারবেন। বিশেষ করে মাইক্রোসফট আপনাকে একটি টুলকিট প্রদান করবে যার মাধ্যমে আপনি মাইক্রোসফট এর একজন আইটি স্পেশালিস্ট হতে পারবেন। এতে করে আপনি তাদের অর্জিনাল কম্পিউটার প্রোগ্রাম যেমন MSDN প্রিমিয়াম সাবস্ক্রিপশন সহ Microsoft Visual Studio Professional Edition, TechNet সাবস্ক্রিপশন, সেলস এবং মার্কেটিং টুলকিট ইত্যাদি সহজে ব্যবহার করতে সক্ষম হবেন।

আপনাদের সুবিধার্থে আমি আমার টিপস এন্ড ট্রিকসগুলি ভিডিও আকারে শেয়ার করার জন্য একটি ইউটিউব চ্যানেল তৈরি করেছি। আশা করি চ্যানেলটি Subscribe করবেন।

সৌজন্যে : বাংলাদেশের জনপ্রিয় এবং বর্তমান সময়ের বাংলা ভাষায় সকল গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ক টিউটোরিয়াল সাইট – www.TutorialBD71.blogspot.com নিত্যনতুন বিভিন্ন বিষয়ে টিউটোরিয়াল পেতে সাইটটিতে সবসময় ভিজিট করুন।



[ad_2]

Source link

Leave a Comment

Share via
Copy link
Powered by Social Snap