বেকিং সোডা | ১৫টি জাদুকরী ব্যবহার জানা আছে কি?

কুকিজ বেক করার কথা। কিন্তু রান্নার কাজ ছাড়াও এই বেকিং সোডা ঘরের নানা রকম কাজে ব্যবহার করা যায় যা আমরা অনেকেই জানি না। বাসা-বাড়ির নানা রকম সমস্যা যার সমাধান অনেকদিন ধরে খুঁজছেন কিন্তু কিছুতেই কোন কাজ হচ্ছে না, এমন কিছু সমস্যার সমাধান দিতে পারে এই বেকিং সোডা। এই ধরণের কিছু টিপস এন্ড ট্রিকস আজ শেয়ার করবো আপনাদের সাথে।

কুকিজ বেক করার কথা। কিন্তু রান্নার কাজ ছাড়াও এই বেকিং সোডা ঘরের নানা রকম কাজে ব্যবহার করা যায় যা আমরা অনেকেই জানি না। বাসা-বাড়ির নানা রকম সমস্যা যার সমাধান অনেকদিন ধরে খুঁজছেন কিন্তু কিছুতেই কোন কাজ হচ্ছে না, এমন কিছু সমস্যার সমাধান দিতে পারে এই বেকিং সোডা। এই ধরণের কিছু টিপস এন্ড ট্রিকস আজ শেয়ার করবো আপনাদের সাথে।

বেকিং সোডার ব্যবহার

(১) টাইলসের ময়লা দূর করতে চান

১ গ্যালন পানিতে ১ কাপ বেকিং সোডা, ১ কাপ হোয়াইট ভিনেগার , ১ টেবিল চামচ লিকুইড ডিশ ওয়াশ মিশিয়ে নিন। এই পানি দিয়ে বাথরুমের মেঝে বা ঘরের যেকোন ময়লা টাইলস ধুয়ে নিন। দেখবেন ময়লা উঠে গিয়ে পরিষ্কার হয়ে গিয়েছে।

(২) রান্নাঘর পরিষ্কারে

 

আপনার রান্নাঘরকে ঝকঝকে পরিষ্কার করতে চাইলে পুরো রান্নাঘরে বেকিং সোডা ছিটিয়ে দিন। এবার কোন স্পঞ্জ (sponge) দিয়ে কিছুক্ষণ ঘষে মুছে ফেলুন। চাইলে সুগন্ধির জন্য লেবুর রস, ল্যাভেন্ডার অয়েল বা পেপারমিন্ট অয়েল ব্যবহার করতে পারেন।

(৩) তেল চিটচিটে হাড়ি-পাতিল পরিষ্কারে

তেল চিটচিটে সসপ্যান বা থালাবাসন সহজে পরিষ্কার করতে ব্যবহার করতেন। বেকিং সোডা মেশানো পানিতে থালাবাসনগুলো ১৫ থেকে ২০ মিনিট ভিজিয়ে রাখুন তারপর ধুয়ে নিন।

(৪) জানালার কোনায় জমে থাকা ময়লা

একটু খেয়াল করলে দেখবেন আপনার বাসার জানালার ট্র্যাকে কালো কালো ময়লা জমে খুব নোংরা দেখায়। বিশেষ করে রান্না ঘরের জানালায়। এই নোংরা ময়লা দূর করতে চাইলে প্রথমে একটি চামচে বেকিং সোডা নিয়ে তা জানালার ট্র্যাকে ছিটিয়ে দিন। এবার হোয়াইট ভিনেগার নিয়ে তার উপর ঢেলে দিন ও ১০ মিনিটের মতো অপেক্ষা করুন। এবার একটি পুরনো টুথব্রাশ দিয়ে ঘষে ঘষে ময়লা পরিষ্কার করে নিন। তারপর একটি পেপার টাওয়েল দিয়ে ময়লাগুলো তুলে ফেলুন।

(৫) কার্পেট ক্লিনার

বিভিন্ন কার্পেট ক্লিনারে যে কেমিক্যাল (chemical) ব্যবহার করা হয় তা শিশুদের জন্য ক্ষতিকর। তাই আপনি চাইলে বেকিং সোডা ব্যবহার করেই কার্পেট পরিষ্কার করতে পারেন। কার্পেটের উপর সোডা ছিটিয়ে দিন। ২০ মিনিট পর ভ্যাকুয়াম ক্লিনার (vacuum cleaner) দিয়ে ভ্যাকিউম করে নিন।

(৬) ফ্রিজে দূর্গন্ধ দূর করতে

ফ্রিজ খুললেই একটা গন্ধ বের হয়? আমরা সবাই চাই ফ্রিজে একটা ফ্রেশ সুগন্ধ থাকুক। এমন পাওয়াটাও খুব কঠিন কিছু না। একটা ছিদ্র ঢাকনাযুক্ত জারে ১/২ কাপ বেকিং সোডা নিয়ে তাতে ৩ ফোঁটা লেমন এসেনশিয়াল অয়েল (essential oil) ও ৩ ফোঁটা অরেঞ্জ এসেনশিয়াল (orange essential) অয়েল নিন। এবার জারটি ফ্রিজের একটি কোণায় রেখে দিন। দেখবেন দুর্গন্ধ দূর হয়ে একটি রিফ্রেশিং সুগন্ধ বের হবে ফ্রিজ খুললে।

(৭) জেন্টাল ক্লিনজার হিসেবে

বাচ্চাদের কাপড় ধোয়ার জন্য জেন্টাল ক্লিঞ্জার হিসেবে বেকিং সোডা ব্যবহার করতে পারেন। এটি প্রাকৃতিক ক্লিঞ্জার হিসেবে কাজ করে। ১ কাপ সোডা পানিতে মিশিয়ে তাতে কিছুক্ষণ কাপড় ভিজিয়ে রাখুন। এরপর ধুয়ে ফেলুন।

(৮) মাইক্রোওয়েভ ক্লিনার

মাইক্রোওয়েভ পরিষ্কারের ক্ষেত্রে কোন ক্ষতিকর কেমিক্যাল ব্যবহার না করে বেকিং সোডা দিয়ে পরিশকার করুন। এক টুকরো কাপড়ে সোডা লাগিয়ে তা দিয়ে মাইক্রোওয়েভ মুছে নিন।

(৯) জুতার গন্ধ দূর করতে

বাইরে থেকে আসার পর জুতা খুলতেই যে দুর্গন্ধ বের হয় তা দূর করতে পারছেন না? জুতার ভিতর অল্প বেকিং সোডা ছিটিয়ে দিন। দুর্গন্ধ চলে যাবে।

(১০) আলমারিতে পরিষ্কার ও ফ্রেশ সুগন্ধ রাখতে চাইলে

আপনার আলমারিতে একটি ছোট বক্সে বেকিং সোডা পাউডার রেখে দিন। দেখবেন কাপড়ের দুর্গন্ধ দূর হয়ে ফ্রেশ ও পরিষ্কার সুগন্ধ থাকবে।

(১১) কফি ও টি-পট ক্লিনার

কফি ও টি পটে যে দাগ পড়ে যায় তা দুর করতে বেকিং সোডা ব্যবহার করতে পারেন। ১/৪ কাপ বেকিং সোডা ও অল্প পানি মিশিয়ে দাগের জায়গাগুলো ঘষে ঘষে ধুয়ে ফেলুন। দাগ যদি বেশি পুরোনো হয়ে তাহলে এই পানিতে ঘন্টাখানেক ভিজিয়ে রাখুন।

(১২) গাড়ি পরিষ্কারে

যেহেতু বেকিং সোডা খুব সহজেই ময়লা, তেলে তেলে ভাব দুর করতে পারে তাই আপনার প্রিয় গাড়িটি বেকিং সোডা দিয়ে পরিষ্কার করতে পারেন। ১/৪ কাপ বেকিং সোডার সাথে ১ কাপ গরম পানি মিশিয়ে পেস্ট তৈরি করুন। এবার একটি কাপড়ে অল্প অল্প এই পেস্ট লাগিয়ে গাড়ির বিভিন্ন অংশ টায়ার, লাইটস, সিট, জানালা একে একে পরিষ্কার করে নিন।

(১৩) শরীরের দুর্গন্ধ দূর করতে

ঘামের গন্ধ নিয়ে খুব ঝামেলায় আছেন? খুব সহজেই দূর করতে পারেন। ১ চা চামচ বেকিং সোডার সাথে পর্যাপ্ত পরিমাণ পানি মিশিয়ে পেস্ট তৈরি করুন। এবার পেস্টটি আন্ডারআর্ম ও পায়ে লাগিয়ে নিন। কিছুক্ষণ হালকাভাবে ঘষে ধুয়ে ফেলুন। ব্যাক্টেরিয়া মরে যাবে সাথে ঘামের গন্ধ দুর হবে।

(১৪) চুলকানি ও ত্বকের জ্বালাপোড়া দুর করে

 

ত্বক রোদে পুড়ে গেলে যে জ্বালাপোড়া হয় তা দুর করতে, অ্যালার্জি, কোন পোকামাকড়ের কামড়ের ব্যথা কমাতে ১ চা চামচ  সোডার পেস্ট তৈরি করে নিন। ত্বকের যেখানে সমস্যা সেখানে লাগিয়ে নিন। এই পেস্ট দিনে ২ থেকে ৩ বার লাগালে উপকার পাবেন।

(১৫) দাঁত পরিষ্কারে

এই সোডা দাঁতের হলদে ভাব দূর করে। তাই আপনি আপনার টুথপেস্টের সাথে অল্প সোডা মিশিয়ে ব্যবহার করতে পারেন। অথবা টুথব্রাশটি সোডাতে ডিপ করে ব্রাশ করে নিতে পারেন। সপ্তাহে দুইবার এভাবে দাঁত ব্রাশ করলে হলদে ভাব থাকবে না।

কম খরচে অনেক সহজেই আমরা নিজের ঘরের অনেক সমস্যায় সমাধান করতে পারি শুধুমাত্র বেকিং সোডা ব্যবহার করেই।

Leave a Comment

Share via
Copy link
Powered by Social Snap