লোকমুখে প্রচলিত কয়েকটি জাল হাদিস (পব ১)

[ad_1]

লোকমুখে প্রচলিত ও নানা ধরনের ভিত্তিহীন উক্তি (ওরফে জাল হাদিস)-পব ১

জাল হাদিসের প্রথম পবে সবাইকে জানাই আমার পক্ষ থেকে সালাম, আসসালামু আলাইকুম । জনসাধারণের মাঝে প্রচলিত অনেক কথা এখন মানুষে হাদিস বানিয়ে বসেছে । এগুলোকে জাল হাদিস হিসেবে অ্যাখ্যায়িত করেছে কুরআন হাদিস রিসাচ সেন্টার । আজকের আটিকেলে ৫টি জাল হাদিস নিয়ে বিষদ আলোচনা করা হবে । তো চলুন শুরু করা যাক ।

জাল হাদিস ১ ::

{হযরত মোহাম্মদ (স) বলেছেন, রাত্রির এক ঘন্টা পরিমাণ দ্বীনী এলেম শিক্ষা করা সমস্ত রাত্রি জাগরিত থাকিয়া ইবাদত করার চেয়েও উত্তম}— এই কথাটি কোন হাদিস গ্রন্থেই রাসুল (স) এর বাণী হিসেবে সংকলিত হয় নি । ইমাম দারিমী তার সুনান গ্রন্থে অত্যন্ত দুবল ও বিচ্ছিন্ন সনদে সাহাবী ইবনু আব্বাস (রা) এর বাণী হিসেবে সংকলন করা হয়েছে । অথাৎ এটি রাসুল (স) এর উক্তি নহে । রাসুল (স) এর অথে যা কিছু বলা হয়েছে তা সম্পূণরুপে জাল ও বানোয়াট ।

জাল হাদিস ২ ::

ইলম শিক্ষার জন্য বা ভালো কাজে পথ চলার জন্য খালি পায়ে গেলে সওয়াব বেশি হয় — বলে কিছু কথা প্রচলিত আছে । এগুলো কোন হাদিসের অন্তভূক্ত নয় । এগুলো সম্পূণ বানোয়াট ও জাল হাদিস ।

জাল হাদিস ৩ ::

আল্লামা ইবনু হাজার আসকালানী, সুয়ূতী, মুল্লা আলী কারী প্রমুখ মুহাদ্দিস উল্লেখ করেন যে, ইলমুল বাতিন বা বাতিনী ইলমকে যাহেরি ইলম থেকে পৃথক বা গোপন কোন বিষয় হিসেবে বণনা করে যেসকল হাদিস প্রচলিত তা সম্পূণরুপে বানোয়াট ও জাল হাদিস ।

জাল হাদিস ৪ ::

“যদি কোন ব্যক্তি ইলম শিক্ষা করে, তবে তা পূববতী পাপের জন্য ক্ষতিপূরণ হয়ে দাঁড়াবে” ___ ইমাম তিরমিযি ছাড়াও দাড়িমি,তাবারাণি প্রমুখ মুহাদ্দিস হাদিসটি সংকলন করেছেন । সকলেই অন্ধ আবু দাউদ নুফাই ইবনুল হারিসের মাধ্যমে হাদিসটি সংকলন করেছেন । তিনি ১৫০ হিজরির দিকে ইন্তিকাল করেছেন । সমসাময়িক ও পরবতীকালের প্রখ্যাত মুহাদ্দিসগণ তুলনামুলক পরীক্ষা নিরীক্ষার মাধ্যমে দেখান যে এই ব্যক্তি হাদিসের নামে মিথ্যা কথা বলতেন ।

হাদিসটি উল্লেখ করার পর ইমাম তিরমিযি মন্তব্য করেন যে, “হাদিসটির সনদ অত্যন্ত দূবল । আবু দাউদ দূবল । আব্দুল্লাহ ইবনু শাখবারাহ ও তাঁর পিতার বিশেষ কোন বিবরণ পাওয়া যায় না এ সম্পকে । এই অন্ধ আবু দাউদের ব্যাপারে অন্যান্য আলেমগণ একই মন্তব্য পেষণ করেছেন । ইমাম তিরমিযি হাদিসটির সনদ দুবল বলেই ক্ষান্ত হয়েছেন ।

আমরা জানি, দুবল হাদিস এক প্রকার জাল হাদিস । যেহেতু এই হাদিসটির বণনাকারী মিথ্যা হাদিস বণনাতে অভিযোগপ্রাপ্ত । তাই কোন কোন মুহাদ্দিস এই হাদিসকে জাল হাদিস বলেছেন ।

সুতরাং ইলম শিক্ষা কোন পাপের ক্ষতিপূরণ হতে পারে না । স্বয়ং আল্লাহই এ ব্যাপারে ভালো জানেন ।

আজ এখান থেকেই বিদায় নিচ্ছি । সবাইকে ধন্যবাদ ।



[ad_2]

Source link

Leave a Comment

Share via
Copy link
Powered by Social Snap