বিস্তারিত জানতে ক্লিক করুন এখানে

আপনি একজন ছাত্র, গৃহিনী কিংবা চাকরিজীবি যাই হয়ে থাকেন না কেন, আপনার লেখা-পড়া বা কাজের ফাঁকে কিংবা চাকরির পাশাপাশি অবসর সময়ের ২/৩ ঘন্টা ব্যয় করে মাসে মোটামুটি ভালোমানের স্মার্ট এমাউন্ট অনলাইনে উপার্জন করতে সক্ষম হবেন। এ ক্ষেত্রে আপনার চাকরি কিংবা লেখা পড়ায় কোন ধরনের ব্যাঘাত ঘটবে না। আপনার মূল প্রফেশন ঠিক রেখেও সামান্য সময় ব্যয় করে অনলাইন হতে টাকা উপার্জন করে নিতে পারবেন।

Table of Contents

আপনি একটি বিষয় ঠান্ডা মস্তিস্কে ভেবে দেখুন, আরো অন্য দশজন স্কুল কিংবা কলেজ পড়ুয়া ছাত্রদের মত আপনিও আপনার মূলবান সময়টুকু ফেইসবুক, টুইটার ও ইউটিউবে ফানি ভিডিও দেখাসহ বিভিন্ন রকম সামাজিক যোগাযোগের সাইটে প্রতিদিন ঘন্টার পর ঘন্টা সময় ব্যয় করছেন। আপনি যদি হিসাব করে দেখেন, আপনি প্রতিদিন গড়ে কতটুকু সময় ইন্টারনেট ব্যবহার করে পার করছেন, তাহলে বেশীরভাগ লোকই বলবে ২-৩ ঘন্টা।

স্কুল কিংবা কলেজ সকল স্তরের ছাত্র-ছাত্রীদের কিছু Extra Pocket Money এর প্রয়োজন হয়। এই অল্প টাকা দিয়েই সে তার নিত্য প্রয়োজনীয় ছোট খাটো সখ এবং প্রয়োজন মিটিয়ে নিতে পারে।

 
 

 

➡️বিস্তারিত⬇️

রেফার করে টাকা

বিকাশ অ্যাপ রেফার করে ১০০ টাকা বোনাস পাওয়ার সুযোগ,

বিকাশ অ্যাপ রেফার করে গ্রাহক তার প্রিয়জনকে অ্যাপ ব্যবহারে উৎসাহিত করার মাধ্যমে পেতে পারেন ১০০ টাকা বোনাস। এদিকে প্রথমবার অ্যাপ ব্যবহাকারীও এই সময়ের মধ্যে পেতে পারেন ৫০ টাকা পর্যন্ত বোনাস।

রেফার করা লিংক থেকে কেউ বিকাশ অ্যাপ-এ প্রথমবার লগ ইন করে যেকোনো লেনদেন করলেই যিনি রেফার করেছেন তিনি পাচ্ছেন ১০০ টাকা বোনাস। ক্যাম্পেইন চলাকালীন সময়ের মধ্যে একজন বিকাশ গ্রাহক যতজনকে খুশি লিংক পাঠাতে পারেন এবং তা থেকে সফল লগ ইন শেষে যে কোন লেনদেন হলেই প্রতিবারই তার ১০০ টাকা বোনাস পাওয়ার সুযোগ থাকছে।

অ্যাপের ডানদিকের বিকাশ লোগোতে ক্লিক করে ‘রেফার এ ফ্রেন্ড’ অপশন থেকে ‘রেফার করুন’ ক্লিক করে অ্যাপের লিংকটি যেকোন মাধ্যম যেমন এসএমএস, ই-মেইল, ম্যাসেঞ্জার, হোয়াটস্অ্যাপ, ভাইবার, ইমো, ইত্যাদির মাধ্যমে প্রিয়জনকে শেয়ার করতে পারবেন গ্রাহক।

এদিকে রেফারেল লিংক থেকে যিনি বিকাশ অ্যাপ দিয়ে নিজের জাতীয় পরিচয়পত্রের ছবি তুলে একাউন্ট খুলে লগ ইন করবেন, তিনি পাবেন ২৫ টাকা ইনস্ট্যান্ট বোনাস। এরপর তিনি বিকাশ অ্যাপ থেকে প্রথমবার যেকোনো পরিমান মোবাইল রিচার্জ বা ক্যাশ আউট করলে পাবেন আরও ২৫ টাকা ক্যাশব্যাক বোনাস। সর্বমোট ৫০ টাকা বোনাস পাবেন গ্রাহক।

উল্লেখ্য, বর্তমান বিকাশ গ্রাহকরা যাদের বিকাশ অ্যাপ নেই তারাও যদি প্রথমবার বিকাশ অ্যাপ থেকে যেকোনো পরিমান মোবাইল রিচার্জ বা ক্যাশ আউট করেন তাদের জন্যও এই ২৫ টাকা ক্যাশব্যাক অফারটি প্রযোজ্য হবে।

প্রতিটি সফল রেফারেলের ভিত্তিতে নতুন গ্রাহকের অ্যাপ লগ ইন ও লেনদেনের জন্য ২ কর্ম দিবসের মধ্যে বোনাস দেওয়া হবে।

বিকাশ অ্যাপে ক্যাশ ইন, ক্যাশ আউট, সেন্ড মানি, মোবাইল রিচার্জ এর পাশাপাশি প্রতিনিয়ত নতুন নতুন সেবা চালু হচ্ছে যেমন- ব্যাংক ও কার্ড থেকে বিকাশে অ্যাড মানি, বিকাশ থেকে ব্যাংকে ট্রান্সফার মানি, বিদ্যুত-পানি-গ্যাস-টেলিফোন এর বিল পেমেন্ট, মার্চেন্ট পেমেন্ট, বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও সিটি কর্পোরেশনের ফি প্রদান, এনজিও ও ইন্স্যুরেন্স কোম্পানির কিস্তি পরিশোধ, বাস-ট্রেন-বিমান-লঞ্চ ও মুভির টিকেট, ক্রেডিট কার্ডের বিল পরিশোধ, ট্রাভেল কোম্পানির বুকিং ইত্যাদি। গ্রাহকরা এসব সেবার মাধ্যমে সহজ করেছেন নিজেদের দৈনন্দিন লেনদেন; তাই তাদের প্রিয়জনদেরও অর্থনৈতিক লেনদেন সহজ করতে বিকাশ অ্যাপ ব্যবহারে উৎসাহিত করতে পারেন রেফারেল ক্যাম্পেইন এর মাধ্যমে।

এর আগে বিভিন্ন সময়ে চলাকালীন রেফারেল ক্যাম্পেইনগুলোতে অংশ নিয়ে বাড়তি আয়ের পথ তৈরি করেছেন হাজারো বিকাশ গ্রাহক। বিকাশ অ্যাপ রেফার করে বাড়তি আয় করতে চাইলে গ্রাহকরা 

www.bkash.com/bn/100taka-referral 

ওয়েবসাইট ভিজিট করে জেনে নিতে পারেন রেফারেল ক্যাম্পেইনের বিস্তারিত।

কিভাবে বিকাশ একাউন্ট খুলবেন দেখে নিন

নগদ অ্যাপ থেকে রেফার করে ইনকাম করুন

নগদ একাউন্ট রেফার অফার সম্পর্কে জানতে চাচ্ছেন? তাহলে এই লেখা টি মনোযোগ সহকারে পড়ার জন্য অনুরোধ করা হচ্ছে। এখানে আমরা নগদ একাউন্ট রেফার অফার সম্পর্কে জানতে পারবো। এই লেখাটি পড়ার মাধ্যমে আপনি জানতে পারবেন নগদ অ্যাপ থেকে রেফার করে ইনকাম করার উপায়। তাহলে চলুন নগদ রেফার সিস্টেম সম্পর্কে বিস্তারিত জেনে নেওয়া যাক।

নগদ মোবাইল ব্যাংকিং সিস্টেমে ব্যাপক পরিবর্তন নিয়ে এসেছে। নগদে আকর্ষণীয় বেশ কিছু অফার প্রচলিত রয়েছে। আপনি যদি কাউকে নগদ একাউন্ট খোলা তে পারেন সেক্ষেত্রে আপনি বোনাস পাবেন। এটাকে নগদ রেফারেল বোনাস হিসেবে গণ্য করছে।

আপনি যদি ঘরে বসে ইনকাম করতে চান সে ক্ষেত্রে এই সুবিধাটি নিতে পারেন। আমরা আপনাকে দেখিয়ে দেবো কিভাবে রেফার সিস্টেম কাজ করে এবং আপনি কত টাকা কমিশন পাবেন।

নগদ অ্যাপ থেকে রেফার করে কত টাকা পাব?

নগদ অ্যাপ থেকে রেফার করে আপনি ভালো পরিমাণ এমাউন্ট ইনকাম করতে পারবেন। অনেকেই ঘরে বসে মাসে প্রচুর ইনকাম করছে নগদ অ্যাপ রেফার করে। ওয়েলকাম বোনাস হিসেবে ২০ টাকা পাবেন। কাউকে অ্যাপ ইনস্টল করাতে পারলে সে ক্ষেত্রে কমিশন তো থাকছেই।

কিভাবে নগদ একাউন্ট খুলবেন দেখে নিন

মোবাইল ব্যাংকিং ‌‌‌‌‌‌”উপায়” একাউন্ট খুলে ৫০ টাকা বোনাস নিয়ে নিন সাথে দেশের সর্বনিম্ন ক্যাশআউট চার্জ।

অত্যাধুনিক ব্লকচেইন প্রযুক্তি ও ডিভাইস অথেনটিকেশনের মতো নিরাপত্তা ফিচারযুক্ত করে মার্চে যাত্রা শুরু করছে ইউনাইটেড কমার্শিয়াল ব্যাংকের মোবাইল ফিন্যানশিয়াল সার্ভিস সাবসিডিয়ারি ‘উপায়’

উপায়-এর মাধ্যমে মোবাইলে টাকা লেনদেন, ইউটিলিটি বিল পেমেন্ট, কেনাকাটার মূল্য পরিশোধ, রেমিট্যান্স গ্রহণ, বেতন প্রদান, এয়ারটাইম ক্রয় করা যাবে।

দেশের সর্বনিম্ন ক্যাশআউট চার্জ। ট্যাক্স-ভ্যাটসহ প্রতি হাজারে মাত্র ১৪ টাকায় ক্যাশ আউট চার্জ কাটবে তাও আবার ইউএসএসডি ব্যবহার করে। এ ছাড়া এটিএম ব্যবহার করে হাজারে মাত্র ৮ টাকায় ক্যাশ আউট করতে পাবে।  

উপায় অ্যাপ ডাউনলোড করে রেজিষ্ট্রেশন করলে ৫০ টাকা বোনাস 

তো দেখে নেয়া যাক কি ভাবে উপায় একাউন্ট খুলবেন

প্রতি “রকেট’ একাউন্ট রেফার করে পেতে পারেন ২৫ টাকা বোনাস।

রেফার অফারঃ প্রতি একাউন্ট রেফার করে পেতে পারেন ২৫ টাকা বোনাস।

একাউন্ট খুলার অফারঃ রকেট অ্যাপ দিয়ে নিজে একাউন্ট খুললেই ২০ টাকা থেকে ৫০টাকা পর্যন্ত বোনাস। (শর্ত প্রযোজ্য)

ক্যাশ আউট অফারঃ  সাধারণত রকেট তিনটি মাধ্যমের উপর নির্ভর করে রকেট ক্যাশ আউট চার্জ করে থাকে। যথাঃ এটিএম, ডিবিবিএল ব্রাঞ্চ, রকেট এজেন্ট,

ডিবিবিএল ব্রাঞ্চঃ আপনি ডিবিবিএল ব্রাঞ্চ এর মাধ্যমে কম খরচে ক্যাশ আউট করতে পারবেন। সাধারণ একাউন্টের জন্য ডিবিবিএল ব্রাঞ্চ ০.৯% চার্জ করে থাকে। অর্থাৎ প্রতি হাজারে ৯ টাকা। অন্যদিকের স্যালারি বা উপবৃত্তি একাউন্টের জন্য রকেট ডিবিবিএল ব্রাঞ্চ আউট চার্জ প্রতি লেনদেনের জন্য ১০ টাকা চার্জ করে। আপনি যত বার টাকা তুলবেন তত বার ১০ টাকা চার্জ হবে। অর্থাৎ টাকা তুললেই ১০ টাকা চার্জ হবে।

রকেট এজেন্টঃ  আপনি রকেট এজেন্ট এর মাধ্যমে ও ক্যাশ আউট করতে পারবেন। এতে একটু ক্যাশ আউট চার্জ একটু বেশি। সাধারণ একাউন্টের জন্য ক্যাশ আউট করলে ১.৮% চার্জ করে থাকে। অর্থাৎ প্রতি হাজারে ১৮ টাকা। এখানে রকেট এজেন্টে ক্যাশ আউট করার আর একটি উপায় আছে সেটি হল রকেট অ্যাপ। রকেট অ্যাপ থেকে  ক্যাশ আউট করলেও সেই একই খরচ প্রায়, আপনি রকেট অ্যাপ থেকে ক্যাশ আউট করলে ১.৭৫% চার্জ করে থাকে। অর্থাৎ প্রতি হাজারে ১৭.৫০ পয়সা।

রকেট ক্যাশব্যাক অফারঃ আপনি রকেট থেকে যেকোন সিমে নির্দিষ্ট পরিমান টাকা রিচার্জ পাবে ক্যাশ ব্যাক অফার।

কিভাবে রকেট একাউন্ট খুলবেন দেখে নিন


 

রেফার করে ডাটা (এমবি)

জিপি আনলিমিটেড জিবি ফ্রী ইন্টারনেট

সবাই পাবেন ১ জিবি ফ্রী ইন্টারনেট বোনাস। বোনাস পেতে আপনাকে কিছু নিয়ম মানতে হবে। আপনি যদি এখনো মাই জিপি অ্যাপ ব্যাবহার না করে থাকেন। তাহলে প্রথম বার লগ ইন করলে পাবেন ১ জিবি বোনাস।

MyGP অ্যাপ রেফার করে জিতে নিন ১৭৫ পয়েন্টস। আর পয়েন্টস জমিয়ে নিন ফ্রি ইন্টারনেট 1GB পর্যন্ত । সাথে ফ্রি এসএমএস তো থাকছেই। ৫০পয়েন্টস পেতে ক্লিক করুন: 

গ্রামীণফোন আনলিমিটেড ফ্রী ইন্টারনেট অফার

মাই জিপি থেকে রেফার লিংক শেয়ার করে নিয়ে নিন আনলিমিটেড ফ্রী ইন্টারনেট অফার। এখানে আমরা দিয়েছে মাই জিপি অ্যাপ ডাউনলোড লিংক। এবং আপনি যতজন কে আপনার রেফার লিংক দিয়ে MyGp App ইন্সটল করাতে পারবেন। প্রত্যেক বারের জন্য পাবেন ১ জিবি ইন্টারনেট একদম ফ্রী।

ডাউনলোড করুন

রবি আনলিমিটেড ফ্রি ইন্টারনেট

বন্ধুরা আজকে আমি আপনাদের বলব কিভাবে আপনারা রেফার করে রবি সিমে ১ জিবি করে ইন্টারনেট একদম ফ্রিতে নিবেন।

তো বন্ধুরা আপনাদের যাদের রবি সিম আছে এবং ধরুন আপনাদের ফ্যামিলিতে তিন-চারটা রবি সিম আছে তাহলে প্রত্যেকটা সিমের জন্য আপনি ১ জিবি করে একদম ফ্রিতে নিয়ে নিতে পারবেন তার জন্য পুরো পোষ্ট আপনাদের প্রথম থেকে শেষ পর্যন্ত মনোযোগ সহকারে পড়তে হবে তো বন্ধুরা এই অফারটি নেওয়ার জন্য আপনাদের কি করতে হবে একটি কাজ করতে হবে সর্বপ্রথম নিচে একটা লিংক দেওয়া হল সেই লিঙ্ক থেকে আপনারা মাই রবি অ্যাপসটি ইন্সটল করুন।

লিংকঃ

https://f8uqp.app.goo.gl/x9qnpHHZz3ELqj9F9

অবশ্যই এই লিংক থেকে ইন্সটল করবেন তাছাড়া কিন্তু আপনি ১ জিবি করে ইন্টারনেট ফ্রিতে নিতে পারবেন না সেই লিঙ্ক থেকে অ্যাপসটি ইন্সটল করার পর আপনাদের কি করতে হবে অথাবা একবাএ বলি কিভাবে ইন্সটল করবেন সেটা হচ্ছে আপনাদের নিচে যে লিংকটা দেওয়া আছে সেই লিংকটায় ক্লিক করবেন দেখবেন আপনাদের সরাসরি প্লে স্টোরে নিয়ে যাবে প্লে স্টোর থেকে অ্যাপ ইন্সটল করুন।  তো বন্ধুরা অ্যাপসটি ইন্সটল করে নেওয়ার পর সরাসরি এ্যাপসটি ওপেন করে ফেলবেন ওপেন করে নেওয়ার পর দেখতে পারবেন প্রথমে বলবে যে আপনাদের এয়ারটেল নাম্বারটি দিতে তখন আপনারা সরাসরি এয়ারটেল নাম্বার টা দিবেন নাম্বারটা দেওয়ার পর তারপর দেখবেন আপনাদের রবি নাম্বারে একটি কোড পাঠানো হয়েছে সেটি আপনারা বসিয়ে দিবেন অথবা যদি অটোমেটিক বসে যায় তাহলে তো ভালোই হলো বন্ধুরা তারপর আপনাদের কি করতে হবে দেখতে পারবেন আপনাদের নাম দিতে বলছে আপনারা আপনাদের নামটা দিয়ে দিবেন।

এয়ারটেল সিমে রেফার করে ১ জিবি করে ফ্রি তে নিন।

তো বন্ধুরা আপনাদের যাদের এয়ারটেল সিম আছে এবং ধরুন আপনাদের ফ্যামিলিতে তিন-চারটা এয়ারটেল সিম আছে তাহলে প্রত্যেকটা সিমের জন্য আপনি ১ জিবি করে একদম ফ্রিতে নিয়ে নিতে পারবেন তার জন্য পুরো পোষ্ট আপনাদের প্রথম থেকে শেষ পর্যন্ত মনোযোগ সহকারে পড়তে হবে তো বন্ধুরা এই অফারটি নেওয়ার জন্য আপনাদের কি করতে হবে একটি কাজ করতে হবে সর্বপ্রথম নিচে একটা লিংক দেওয়া হল সেই লিঙ্ক থেকে আপনারা মাই এয়ারটেল অ্যাপসটি ইন্সটল করুন।

অ্যাপ ডাউনলোড লিংকঃ https://bdairtel.page.link/Dn4PvtQGCFomMLmN8

নামটা দিয়ে দেওয়ার পরে তারপর আপনাদের কি করতে হবে নেক্সট এর ক্লিক করতে হবে ক্লিক করার পর আপনাদের অ্যাকাউন্ট খোলা হয়ে গেল। এখন আপনাদের কি করতে হবে দেখতে পারবেন Refer a friend নামে একটি অপশন আছে সেই অপশনের উপর ক্লিক করে দিবেন তারপর তারপর দেখতে পারবেন।
সেইখানে একটা লিঙ্ক চলে আসছে সেই লিংকটা আপনারা সরাসরি কপি করে নিবেন তো বন্ধুরা লিংকটা সরাসরি কপি করে নেওয়ার পর তারপর আপনাদের কি করতে হবে সেই লিংকটা আপনাদের ফ্যামিলির যে ফোনে এয়ারটেল সিম আছে তার কাছে সেন্ড করতে হবে তো বন্ধুরা তার কাছে সেন্ড করে দেওয়ার পর সে যখন সেই লিংকে ক্লিক করে অ্যাপটি ডাউনলোড করবে এবং ওপেন করবে ঠিক আপনার মত একাউন্ট খুলবে নাম্বার এবং নাম দিয়ে এভাবে একাউন্টটা খোলার সাথে সাথে আপনি ১ জিবি ইন্টারনেট ফ্রিতে পেয়ে যাবেন তো বন্ধুরা এভাবে মূলত রেফার করে আপনারা এয়ারটেল সিমে ১ জিবি করে ইন্টারনেট করে ফ্রিতে নিতে পারবেন।

টফি অ্যাপসে রেফার করলেই ১ জিবি পর্যন্ত ফ্রি ইন্টারনেট বোনাস যা সবাই পাবেন

 টফি অ্যাপসটি বাংলালিংক কোম্পানির একটা অ্যাপস। টফি অ্যাপস টি দিয়ে কিভাবে রেফার করবেন এবং কিভাবে ইন্টারনেট চালাবেন সেটা আজ আমি আপনাদের কে বলবো । টফি অ্যাপস দিয়ে আপনারা অসংখ্য টিভি চ্যানেল নাটক মুভি ইত্যাদি আপনাদের পছন্দের অনেক কিছু দেখতে পারবেন এই অ্যাপস দিয়ে । টফি অ্যাপস টি ডাউনলোড করতে হলে আপনাদেরকে যা করতে হবে তা হলো আপনাদেরকে সর্বপ্রথম প্লে স্টোরে গিয়ে সার্চ করতে হবে টফি লিখে । এরপর আপনারা সেই অ্যাপসটি ডাউনলোড করবেন । ডাউনলোড করার পর অ্যাপসটি ওপেন করবেন । মনে রাখবেন এই অ্যাপসটি দিয়ে রেফার করার জন্য আপনাদের বাংলালিংক সিমের প্রয়োজন হবে । বাংলালিংক সিম ছাড়া রেফার করলে আপনারা ফ্রি ইন্টারনেট পাবেন না । টফি অ্যাপস টি ওপেন করে আপনারা আপনাদের বাংলালিংক সিম দিয়ে লগইন করবেন । নাম্বার দিয়ে লগইন করার পর আপনারা নিচে একটা লেখা দেখতে পারবেন রেফার অপশন । সেখানে 31801647 এই কোড টি বসাবেন । এই কোড টি বসালে সাথে সাথে আপনারা ১ জিবি ফ্রি টফি ইন্টারনেট পেয়ে যাবেন এবং ফ্রিতে ভিডিও দেখতে পারবেন । তারপর আপনারা টফি অ্যাপস এর ভিতরে আপনাদের একটি প্রোমো কোড পেয়ে যাবেন । সেই প্রোমো কোড টি দিয়ে আপনাদের বন্ধুদের টফি অ্যাপস রেফার করালেই আপনি ১ জিবি পর্যন্ত বোনাস পেয়ে যাবেন ।

ডাউনলোড Toffee

রেফার করে মোবাইল রিচার্জ ও টাকা

স্নাক ভিডিও-Snak Video

আপনি প্রতি রেফার এ সর্বোচ্চ ৩০০ টাকা, আপনার একটি রেফার থেকে ৯০ টাকা পর্যন্ত আয় করতে পারবেন। সো আর দেরি না করে এখনি শুরু করে দিন রেফার করা। একটি কোম্পানি যখন মার্কেটে নতুন আসে তারা এই সুযোগটা করে দেয়। মূলত তারা এটি তাদের কোম্পানির মার্কেটিং এর জন্য করে থাকে।

যেভাবে স্নাক ভিডিও থেকে ইনকাম করবেন

টিকটক

TikTok থেকে টাকা ইনকাম করার ৫ টি উপায়

টিকটক থেকে আয়: আপনি অবশ্যই টিকটক ভিডিও দেখেছেন, তবে আজ আমরা TikTok থেকে টাকা ইনকাম করার ৫ টি উপায় সর্পকে জানব? আপনি নিশ্চই টিকটক থেকে আয় করার উপায় জানতে এখানে এসেছেন।  ইউটিউবের মতো টিকটকে উপার্জনের কোনও বিজ্ঞাপন শো নেই, তবে এখান থেকে অর্থ উপার্জনের উপায় কী?

এখনই Tiktok Video গুলি ট্রেন্ডিং চলছে এবং প্রচুর লোক বিশেষত তরুণ প্রজন্ম এটি ব্যবহার করছে। এই এপটির জনপ্রিয়তা এটির দ্বারা অনুমান করা যায় যে প্লেস্টোর থেকে এখন পর্যন্ত 200 মিলিয়নেরও বেশি ডাউনলোড হয়েছে।

আপনি কি জানেন যে, টিকটক থেকে আপনি প্রচুর অর্থোপার্জন করতে পারবেন? না জানলে আপনি আমার পুরো পোস্টটি মনোযোগ দিয়ে পড়েন। টিকটক একটি ভালোটাকা আয় করার apps। তবে প্রথমে আপনাকে এটির বেসিক টিকটক কী হায় এবং কীভাবে টিকটকে ভিডিও বানাবেন তা বুঝতে হবে।

TikTok এপটি ডাউনলোড করলে পাবেন ২৫০ টাকা বোনাস।

লাইকি অ্যাপস এর মাধ্যমে টাকা ইনকাম

লাইকি অ্যাপস এর মাধ্যমে টাকা ইনকাম করার প্রধান মাধ্যম হচ্ছে হ্যাশট্যাগ দিয়ে ভিডিও আপলোড করা। লাইকি অ্যাপস এর মধ্যে অনেক ধরনের হ্যাশট্যাগ দিয়ে ভিডিও আপলোড করা হয়। যে এই হ্যাশট্যাগ এর মধ্যে সবচেয়ে পপুলার হয় তাকে লাইকি কোম্পানি থেকে অনেক টাকা পুরস্কার দেওয়া হয়। এই টাকার পরিমাণ কখনো কখনো ৫০০-১০০০ ডলার পর্যন্ত হয়ে থাকে। আপনার পুরস্কারের টাকা আপনার লাইকি ওয়ালেট এর মাধ্যমে খুব সহজে তুলতে পারবেন। মাসে এই ধরনের তিন-চারটি হ্যাশট্যাগ কম্পিটিশন এর মধ্যে পারফরম্যান্স করে জিততে পারলে ভাল পরিমান টাকা প্রোফাইলে চলে আসবে। 

এই হ্যাশট্যাগ কম্পিউটেশন ছাড়াও লাইকি অ্যাপ থেকে ইনকাম করার আরও একটি উপায় রয়েছে এটি হচ্ছে লাইভ করে ইনকাম করা

লাইকি এপ থেকে যেভাবে ইনকাম করবেন বিস্তারিত

Ring ID থেকে টাকা ইনকাম

তো আজকে আমরা Ring ID’র নতুন Community Jobs অফার সম্পর্কে আলোচনা করব। এটি থেকে আপনি প্রতিদিন ২৫ টাকা থেকে শুরু করে সর্বোচ্চ ৫০০ টাকা পর্যন্ত আয় করতে পারবেন। তাহলে চলুন বিস্তারিত জেনে নিই। 

রিং আইডি থেকে যেভাবে অনকাম করবেন

Leave a Comment

Share via
Copy link
Powered by Social Snap